বিধিনিষেধ: উদাসীনতায় মাঠের চিত্র হতাশার

নিজস্ব প্রতিবেদক
বিশেষ প্রতিনিধি
প্রকাশিত: শুক্রবার ১৪ই জানুয়ারী ২০২২ ০৮:২৩ অপরাহ্ন
বিধিনিষেধ: উদাসীনতায় মাঠের চিত্র হতাশার

করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি ঠেকাতে সরকারের বিধিনিষেধ আশার সঞ্চার করলেও মাঠের চিত্র চরম হতাশার। বেশিরভাগ মানুষই মানছেন না স্বাস্থ্যবিধি। নির্দেশনা মানাতে প্রশাসনেরও নেই কোনো তৎপরতা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সরকার কঠোর না হলে সামনের দিনে দিতে হতে পারে চড়া মূল্য।


ক্রমবর্ধমান করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারের ১১ দফা নির্দেশনার দ্বিতীয় দিনে রাজধানীর কারওয়ান বাজারের চিত্রটা অনেক ভিন্ন। শুক্রবার ছুটির দিন হওয়ায় ক্রেতা-বিক্রেতার সমাগম অনেক বেশি।


নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী কেনার ব্যস্ততায় অতি প্রয়োজনীয় সুরক্ষা সামগ্রী মাস্ক আনতেই বেমালুম ভুলে গেছেন অনেকেই। আবার যাদের সঙ্গে আছে তারাও মাস্ক পরেননি সঠিকভাবে ।


সড়ক কিংবা দোকানপাটের চিত্রও প্রায় একই। সর্বত্রই যেন মাস্ক পরায় চরম অনীহা। নির্দেশনার নিয়ম অমান্যকারীকে আইনের আওতায় আনার কথা বলা হলেও মাঠে নেই সরকারের সংশ্লিষ্টরা।


এদিকে, করোনা সংক্রমণ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে রোগী ভর্তির সংখ্যা কিছুটা বাড়লেও, বেশি বেড়েছে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা। অনেকেই আতঙ্ক থেকে করোনা পরীক্ষা করাচ্ছেন। পাশাপাশি করোনা পজেটিভও হচ্ছে কয়েক সপ্তাহের তুলনায় বেশি। কারো কারো কোনো উপসর্গ না থাকলেও পরীক্ষায় পজেটিভ আসছে। যদিও ঠান্ডা বা জ্বর থাকলেও পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ আসছে অনেকের।


প্রাতিষ্ঠানিক উদ্যোগ ছাড়া বিধি-নিষেধ বাস্তবায়ন সম্ভব নয় জানিয়ে, বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বিধিনিষেধ কার্যকর করা একটা বড় চ্যালেঞ্জ। এজন্য সবাইকে প্রাতিষ্ঠাকিভাবে সম্পৃক্ত করতে হবে। সম্পৃক্ত করতে হবে জনপ্রতিনিধিদেরও।


দেশে এ পর্যন্ত করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ লাখেরও বেশি মানুষ এবং মৃত্যুর সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২৮ হাজার।